Logo
মঙ্গলবার ১২ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং ২৭শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ ১৫ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী

শহরে কাজীর পয়েন্টে এক কলেজ শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে আহত

স্টাফ রিপোর্টারঃ
সুনামগঞ্জ পৌর শহরে মো. নুরুজ্জামান (২১) নামের এক কলেজ শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে দুর্বত্তরা। তাকে সিলেট এক এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নুরুজ্জামান ছাত্রলীগের কর্মী বলে জানা গেছে। বুধবার দুপুরে পৌর শহরের কাজীর পয়েন্ট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মো. নুরুজ্জামান পৌর শহরের আলী পাড়া এলাকার মৃত মখদ্দুছ আলীর ছেলে এবং শহরের নর্থইষ্ট আইডিয়াল কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র। সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে থাকা অবস্থায় নুরুজ্জামান জানান, তিনি এব তার আরেক বন্ধু রোকন উদ্দিন বেলা একটার দিকে শহর থেকে একটি মোটরসাইকেলে করে বাসায় ফিরছিলেন। কাজীরপয়েন্ট এলাকায় যাওয়ার পর পেছন থেকে দুটি মোটরসাইকেলে চার যুবক এসে রামদা, ছুরি নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায়। তখন মোটরসাইকেল নিয়ে রাস্তায় পড়ে যান তারা। রোকন উদ্দিন দৌঁড়ে ঘটনাস্থল থেকে সরে যান। এ সময় তাদের রামদার আঘাতে গুরুতর আহত হন নুরুজ্জামান। এরপর হামলাকারীরা দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরে নুরুজ্জামানকে প্রথমে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে এবং পরে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নুরুজ্জামান অভিযোগ করেন, তার ওপর হামালায় অন্যদের সঙ্গে শহরের সুলতানপুর এলাকর শাওন এবং আরপিননগর এলাকার রাহাত নামের দুই যুবক ছিলেন। রোকন উদ্দিন জানান, এর আগে কলেজে হামলাকারীদের সঙ্গে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে তাদের একটা ঝামেলা হয়েছিল। এর জের ধরেই তাদের ওপর হামলা হয়েছে। হামলার প্রত্যক্ষদর্শীরা একজন বলেন, এভাবে রাস্তায় প্রকাশ্যে রামদা নিয়ে হামলার ঘটনায় পুরো কাজীর পয়েন্ট এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। আসলে এরা একে-অপরের পরিচিত। শহরে এদের চলাফেরা সুবিধার নয়। নিজেদের মধ্যে ঝামেলা থেকেই এ ঘটনা ঘটেছে। জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি আবুল হাসনাত মোহাম্মদ কাওসার জানান, হামলায় আহত নুরুজ্জামান ছাত্রলীগের কর্মী। তারাও বিষয়টি নিয়ে খোঁজ খবর নিচ্ছেন। সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম জানান, নুরুজ্জামানের শরীরে একাধিক আঘাত রয়েছে। প্রচুর রক্তক্ষরণ হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেটে পাঠানো হয়েছে। সুনামগঞ্জ সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সনজুর মোর্শেদ বলেন, আমরা ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ধরার চেষ্টা করছি।

নিউজটি শেয়ার করুন